মে ১৮, ২০২১
দৈনিক আলোর কন্ঠ » ব্লগ » প্রেম নাকি প্রতিশোধের গল্প?

প্রেম নাকি প্রতিশোধের গল্প?

বিনোদন প্রতিবেদক, ঠাকুরগাঁও টাইমস

একটা রিইউনিয়নে ফ্ল্যাশব্যাকে ফিরে আসে অতীতের স্মৃতি। উদ্দম কৈশোর, উচ্ছ্বলতা, প্রেম, আবার কখনো বা অপূর্ণতার সেই গল্পগুলো হঠাৎ যেন থমকে গেল! ২০০৩ সালের এসএসসি ব্যাচের কয়েক ছাত্রকে নিয়ে রাফায়েল হাসানের গল্প অবলম্বনে নির্মিত ওয়েব ফিল্ম ব্যাচ ‘২০০৩’। এটির রচনা-পরিচালক পার্থ সরকার। সম্প্রতি অনলাইন ভিত্তিক প্লাটফর্ম বিঞ্জে মুক্তি পেয়েছে এটি।

‘ব্যাচ ২০০৩’তে অভিনয় করেছেন সজল,কাজী নওশাবা আহমেদ,তাসনুভা তিশা, তন্ময়, শারমিন আঁখি, অনিকা তাবাসসুম, তৌহিদুল ইসলাম, ফজলে রাব্বি, জান্নাত প্রমুখ।

মুক্তির পর ‘ব্যাচ ২০০৩’ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনার কেন্দ্র-বিন্দু জুড়ে রয়েছে বড় একটা জায়গা। সমালোচকদের কাছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পেলেও দর্শকদের কাছে সম্পূর্ণ নতুন কিছু পাচ্ছেন সিনেমাটির টিম মেম্বার’রা।

‘ব্যাচ ২০০৩’ ওয়েব ফিল্মে বেশ কিছু দারুণ শট ছিল। গল্প থেকে উঠে আপনি যদি একটু সিনেমাটোগ্রাফির দিকে মনোযোগ দেন তাহলে বিস্ময়ের সাথে খেয়াল করবেন কতটা অসাধারণ সব দৃশ্যপট বন্দি করেছেন অভিনয়শিল্পীদের নির্মাতা পার্থ সরকার।সিনেমার ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক আরেকটি অন্যতম অংশ।

সিনেমায় সব চরিত্রেই অভিনয়শিল্পীরাই তাঁদের দক্ষ অভিনয় দেখাতে সফল হয়েছেন। খল-নায়ক ভুমিকায় সজল একেবারে ফিট ছিলেন। বহুদিন পর সজল সিনেমায় আবারও তাঁর অভিনয় দেখানোর সুযোগ পেলেন এবং তিনি দর্শকের নিরাশ করেননি। বরং ভক্তদের এক্সপেক্টেশন ছাড়িয়ে গেছেন তার অভিনয়।

সাইকো থ্রিলার গল্পে নির্মিত সিনেমায় সজলের মুখ ঝলসানো! মনে হচ্ছে কেউ যেন এসিড মেরেছে! মুখের এক পাশ পুরো পুড়ে গিয়েছে! দর্শকের ভাষ্য এ যেনো এক নতুন সজলের আবির্ভাব। এতে রোমান্টিক হিরো সজলের খল চরিত্রের অভিনয় চোখ ধাঁধানো ছিল। পাশাপাশি কাজী নওশবা আহমেদ, তাসনুভা তিশাসহ সবার অভিনয় ছিল সাবলীল। ইতিমধ্যে সিনেমাটি দর্শকমহলে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। সবমিলিয়ে রহস্যে মোড়ানো সাইকো থ্রিলার সিনেমাটি জমে উঠেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: