মশা মারতে মাঠে তারা

 

মশক নিধন, পরিচ্ছন্নতা, জনসচেতনতামূলক কর্মসূচি পালন করছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। পাশাপাশি আধুনিক যন্ত্র রোড সুইপার এবং জেট অ্যান্ড সাকারের মাধ্যমে সুইপিং, ড্রেন পরিষ্কার, রূপনগর খালে পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম চালানো হচ্ছে।

dncc

বুধবার ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে মিরপুরের রূপনগর এলাকা থেকে এসব কার্যক্রম শুরু হয়। দুপুরে এ কার্যক্রমে যোগ দেবেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র আতিকুল ইসলাম, প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা প্রমুখ। তারা সেখানে সচেতনতামূলক বক্তব্য দেবেন বলে জানা গেছে।

dncc

গত ২৯ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর মিরপুরে ডিএনসিসির ১২ নং ওয়ার্ড থেকে এডিস মশা নিধনে ঝুঁকিপূর্ণ ওয়ার্ডে মশক নিধনে বিশেষ ও জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম শুরু হয়।

dncc

ডিএনসিসি সূত্রে জানা গেছে, এডিস মশার উপদ্রব হ্রাসকল্পে বছরব্যাপী কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে, যা জানুয়ারি মাস থেকেই চলমান। তবে সম্প্রতি স্বাস্থ্য অধিদফতরের এক জরিপে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের বেশকিছু ওয়ার্ডকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। এর মধ্যে ডিএনসিসির ৫টি ওয়ার্ড রয়েছে। সেগুলো হলো- ওয়ার্ড নং ১, ১২, ১৬, ২০ এবং ৩১।

dncc

স্বাস্থ্য অধিদফতরের রিপোর্টের আলোকে ডিএনসিসি স্বাস্থ্য বিভাগ সব ওয়ার্ডে নিয়মিত কার্যক্রমের সঙ্গে এই ৫টি অঞ্চলে বিশেষ কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

dncc

ডিএনসিসির পক্ষ থেকে বলা হয়, নাগরিকদের সবার সহযোগিতাই পারে নগরবাসীকে এডিস মশা থেকে মুক্তি দিতে। জনসাধারণকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার প্রতি উদ্বুদ্ধ হয়ে নিজেদের বাসা-বাড়ি, ভবন এবং এলাকা নিজেরা পরিষ্কারে সচেতন হতে হবে। প্রয়োজনে আমাদের গাড়ি এসে সংগ্রহ করে নিয়ে যাবে, কিন্তু যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা ফেলবেন না, কোথাও পানি জমে থাকতে দেবেন না। ডাবের খোসা, টিনের কৌটা, বোতল, প্লাস্টিকের পট, হাড়ি, ভাঙা বা পরিত্যক্ত ফুলের টব যেখানে সেখানে রাখবেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: