ঠাকুরগাঁও রহিমানপুরে ২০০টি অসহায় ও কর্মহীন পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ

ঠাকুরগাঁও রহিমানপুরে ২০০টি অসহায় ও কর্মহীন পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ

মামুনুর রশিদ (মামুন),ঠাকুরগাঁও  প্রতিনিধি : বাংলাদেশে করোনা মহামারীর কারণে প্রতিনিয়ত বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা ও লাশের সারি। বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে নেওয়া হয়েছে বিভিন্ন রকম পদক্ষেপ। এ অবস্থায় ঘর থেকে বের হতে পাচ্ছে না জনসাধারণ। সরকার গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের কারণে দুঃস্থ ও নিম্ন আয়ের মানুষেরা সাময়িক দূর্ভোগে পড়েছে। এ দূর্ভোগ থেকে তাদের পরিত্রাণের অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন সংগঠন ও সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহবান জানান।

প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা বাস্তবায়ন ও কর্মহীনতা লক্ষে বুধবার  (২২ এপ্রিল) সকাল ১১টায় ৮ নং রহিমানপুর ইউনিয়নের রহিমানপুর উত্তর পাড়া ২ নং ওয়ার্ডে ′′দশে মিলে সমাজ গড়ি,টেকশই উন্নয়ন নিশ্চিত করি′′ এ শ্লোগানে রহিমানপুর ঐক্য শান্তি শৃঙ্খলা কমিটি এর উদ্যোগে নিজ অর্থায়নে স্থানীয় ২০০টি হতদরিদ্র ও কর্মহীন পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এ সময় প্রত্যেক পরিবারকে ১০কেজি চাল ও ১ কেজি ডাল এর প্যাকেট প্রদান করা হয় ।

খাদ্য সামগ্রী বিতরণের সময়  উপস্থিত ছিলেন,৮ নং রহিমানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান হান্নু,৮ নং রহিমানপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম,রহিমানপুর ঐক্য শান্তি শৃঙ্খলা কমিটি সংগঠনের সভাপতি মোকছেদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক জাপান,আলহাজ্ব ইউসুফ কাজী ও যুগ্ন -সাধারণ সম্পাদক মোমীনুল ইসলাম মোমিন সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

খাদ্য সামগ্রী বিতরণের সময়,রহিমানপুর ঐক্য শান্তি শৃঙ্খলা কমিটি এর সভাপতি মোকছেদুল ইসলাম জানান,করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আমরা ব্যাপক কার্যক্রম চালাচ্ছি। বিভিন্ন জায়গায় করোনা প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে লিফলেট বিতরণ ও জীবণুনাশক স্প্রে করা হয়েছে। আমাদের সংগঠনের উদ্যোগে স্থানীয় ভাবে সামাজিক দূরত্বের বাজার বসানো হয়েছে। আমরা সরকারি ও বেসরকারি ভাবে যদি কোন সহযোগিতা পাই তাহলে রহিমানপুর ইউনিয়নে সাধারণ মানুষদের জন্য কিছু করতে পারবো। ৮ নং রহিমানপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান হান্নু বলেন,রহিমানপুর ঐক্য শান্তি শৃঙ্খলা কমিটি যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছি তা সত্যিই প্রশংসনীয়। আসুন আমরা সকলে এ সংগঠনের পাশে দাড়াই। এ সময় তিনি আরো বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আমাদের সবাইকে সচেতন হতে হবে। অপ্রয়োজনীয় বাড়ী থেকে বের হওয়া যাবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: