মে ১৪, ২০২১
দৈনিক আলোর কন্ঠ » ব্লগ » ইয়ামাহার ১০০০ সিসির বাইক বাংলাদেশে

ইয়ামাহার ১০০০ সিসির বাইক বাংলাদেশে

অটোমোবাইল প্রতিবেদক,

বাংলাদেশের বাইকপ্রেমীদের কাছে ইয়ামাহা অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি ব্র্যান্ড। প্রতিষ্ঠানটি সম্প্রতি দেশে ১০০০ সিসির একটি বাইক প্রদর্শন করছে। মডেল আর১এম। এই মডেলটি প্যাশনেট বাইকারদের ড্রিম বাইক।

মোটোজিপি, ডাব্লিউএসবিকে এর মতো মোটরসাইকেল রেসিং এর আন্তর্জাতিক আসর এখন বাংলাদেশের বাইকারদের কাছে তুমুল জনপ্রিয়। সেই জনপ্রিয়তা এবং বাইকারদের চাহিদাকে মাথায় রেখেই ইয়ামাহা জাপান বাইকটি বাংলাদেশে তাদের টেকনিক্যাল কোলাবোরেটেড পার্টনার এ সি আই মোটরসকে সম্প্রতি উপহার হিসাবে পাঠিয়েছে।

বাংলাদেশে এত উচ্চ সি সি র মোটরসাইকেল এর অনুমোদন না থাকায় বাইকটি শুধুমাত্র প্রদর্শনীর জন্য ব্যবহার করা হবে।

বিগত ৭ দশক ধরে মটোজিপি, ডাব্লিউএসবিকে ইত্যাদি রেসিং ট্র্যাকে ঝড় তোলা ইয়ামাহা এম১ এর কনসেপ্টে তৈরি ইয়ামাহা ওয়াইজেডএফ-আর১এম।

এতে রয়েছে কার্বনের তৈরি বডি কাউল, ইলেকট্রনিক কন্ট্রোল টেকনোলজি এবং ইলেকট্রনিক রেসিং সাসপেনশন। ব্যবহৃত হয়েছে নতুন ওলিন্স এনপিএক্স গ্যাস ফর্ক।

বাইকটির ফোর স্ট্রোক লিকুইড কুলড ডিওএইচসি ইঞ্জিনে রয়েছে ফরওয়ার্ড-ইনক্লাইন্ড প্যারালাল ৪-সিলিন্ডার, ৪-ভালভ। বাইকটির কম্প্রেসর রেসিও ১৩.০:১, ওভারঅল হাইট ১১৫০ মিমি, ডিসপ্লেসমেন্ট ৯৯৮ সিসি। ম্যাক্সিমাম পাওয়ার-১৪৭.১ কিলোওয়াট @ ১৩৫০০ আরপিএম এবং ম্যাক্সিমাম টর্ক- ১১২.৪ নিউটন মিটার @ ১১৫০০ আরপিএম।

ক্লাচ টাইপ- ওয়েট, মাল্টিপল ডিস্ক এবং ইলেকট্রিক স্টার্ট সিস্টেম। বাইকটির ফুয়েল কনজামশন-৭.২ লিটার/১০০ কিলোমিটার।

প্যাসোনেট বাইকারদের মধ্যে খুব কমই আছেন যারা সুপারবাইক ভালোবাসেন না। টিভি পর্দায় বা রেসিং ট্র্যাকে দেখা সুপারবাইক সামনা-সামনি দেখতে কার না ইচ্ছে করে। ইয়ামাহা ওয়াইজেডএফ-আর১এম তেমনই একটি সুপার স্পোর্টসবাইক। যা অনেক বাইকারেরই স্বপ্নের বাইক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: